।Goji Cream - Bangladesh
সংবাদ

তারা ৪৭ বছর বয়েসি মা কে ছেলের বান্ধবি ভেবেছিল। তিনি তার যৌবনের রহস্য উদ্ভাবন করেছিলেন।

প্রকাশিত

এই অবিশ্বাস্য গল্পটি দ্রুত ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ে। মফিজ উদ্দিনের (২২) তার পছন্দের মেয়েটির সাথে দেখা করার ইচ্ছা প্রকাশ করে একটি বার্তা প্রেরনের মাধ্যমে এর শুরু হয়েছিল। মেয়েটি লক্ষ্য করেছে যে মফিজ তার প্রোফাইলের ছবিতে একা ছিল না আর তাই সে জিজ্ঞাসা করেছিল যে মফিজের সাথে তার দেখা করায় ছবিতে থাকা মেয়েটি আপত্তি জানাতে পারে কিনা। উত্তরে মেয়েটি হতবাক করে দিয়েছিল: "এটি আমার বান্ধবী নয়, এটা আমার মা।"

ক্যাপশন মফিজ উদ্দিন এবং তার মায়ার প্রোফাইল ছবি

মেয়েটি ভাবল যে এটি একটি হাস্যকর অজুহাত। তবে, যখন সে মফিজের প্রোফাইলটি ভালোভাবে পরীক্ষা করলো, তখন সে বুঝতে পেরেছিল যে সে মিথ্যা বলছে না: "আমার মা এবং আমি।" ক্যাপশসহ মফিজ উদ্দিন এবং তার ৪৭ বছর বয়সী প্রবীণ সুন্দরী মায়ের কয়েকটি ছবি ছিল। এটি প্রথমবার নয় যে মায়াকে তাঁর ছেলের বান্ধবী হিসাবে ভুল করে এবং তাঁর দ্বিগুণ বয়সেও যুবতি হিসাবে কি করে দেখায় তা নিয়ে তাঁকে অনর্গল প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হতো। অনেক লোক সন্দেহ করেছিল যে সেলিনার সৌন্দর্য হলো একটি প্লাস্টিক সার্জারির ফলাফল, তবে তার গোপনীয়তা আসলে অন্যকিছু ছিল।

ক্যাপশন বামে: ৩ বছর বয়সী মফিজ এবং তার ২৮ বছর বয়সী মা। ডানে: মায়া তাঁর ৪৭ তম জন্মদিনে

-মায়া, এই ছবিগুলো দেখে মনে হচ্ছে গত ২০ বছরের মধ্যে আপনার কোনও পরিবর্তন হয়নি। আপনি সম্ভবত এর উত্তর দিয়ে ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন, কিন্তু আমি কি আপনাকে একটি প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করতে পারি? আপনি এটা কিভাবে করলেন?

-সবার আগে, আপনাকে ধন্যবাদ। আপনার কথাগুলি তোষামদ করে বলা। অবশ্যই আমি পরিবর্তিত হয়েছি। প্রথমত, আমার স্টাইল এবং পোশাকের স্টাইল এখন অবশ্যই আরও ভাল। দ্বিতীয়ত, আমি খুব ভাগ্যবান, কারণ আমি একজন চর্মরোগবিশেষজ্ঞকে বিয়ে করেছি।

-তাহলে, আপনার এত সুন্দর এবং যুবতী হওয়ার এটাই একমাত্র কারণ?

-অবশ্যই। আমার স্বামী একজন বিশেষজ্ঞ, একজন চিকিৎসক। আমি কেবল তাঁর পরামর্শ অনুসরণ করি।

-এটা যদি কোন গোপনীয় বিষয় না হয়ে থাকে, তাঁর পরামর্শটা কী?

-সাধারণ নিয়ম যা আপনি অসংখ্যবার শুনেছেন: সঠিক ঘুম এবং পুষ্টি। তবে আমি যদি বলি এগুলিই যথেষ্ট হবে তবে তা মিথ্যা হবে। আমার স্বামী একজন লাইসেন্সপ্রাপ্ত বিশেষজ্ঞ যিনি ল্যাবরেটরিগুলোর সাথে যৌথভাবে কাজ করেন। প্রায় ১০ বছর আগে, তিনি সর্বপ্রথম একটি নবজীবন ফর্মুলা( Goji Cream ) তৈরি করেছিলেন। প্রথম স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে আমার উপরেই পরীক্ষা করা হয়েছিল। সেই সময় আমার বয়স ছিল ৩৭ বছর এবং অবশ্যই তখন আমার বলিরেখা, রঙ্গক দাগ ইত্যাদি ছিল..

ক্যাপশন তাঁর চর্মরোগবিশেষজ্ঞ স্বামীর তৈরি ফর্মুলার জন্য তাঁকে ধন্যবাদ জানাই, কারণ ৪৭ বছর বয়সী মায়াকে ২০ বছর কম বয়সী দেখায়।

-তাহলে কি আপনার স্বামী আপনার জন্য এই বিশেষ পণ্যটির উদ্ভাবন করেছিলেন?

-প্রথমদিকে হ্যাঁ। আমি নিজেকে আয়নায় দেখলে খুব দুঃখ পেতাম। এবং আমি অভিযোগ করতেই থাকতাম যে আমার স্বামী চর্মরোগবিশেষজ্ঞ হওয়া সত্ত্বেও তিনি আমার বার্ধক্যজনিত ত্বকের জন্য কিছুই করতে পারেননি। কসমেটিক ইনজেকশনগুলি আমার কোন কাজেরই ছিল না। একজন চিকিৎসকের স্ত্রী হিসাবে আমি ত্বকের নিচে রাসায়নিক পদার্থ প্রবেশের পরিণতি সম্পর্কে পুরোপুরি অবগত ছিলাম। তাছাড়া আমার সূঁচের ওপর ভয়ঙ্কর ভয় রয়েছে। সুতরাং তিনি যে ফর্মুলাটি উদ্ভাবন করেছিলেন তা বেশ কয়েকটি কারণে লক্ষ্যবস্তু ভেদ করতে সক্ষম হয়েছে: প্রথমত, তিনি একটি যুবতী এবং সুন্দরী মহিলা পেতে যাচ্ছেন। দ্বিতীয়ত, আমি জেদাজেদি বন্ধ করতে যাচ্ছি। তৃতীয়ত, এটি তাঁর জন্য একটি চ্যালেঞ্জ ছিল এবং তিনি সর্বদা নিজের পণ্যটিকে দীর্ঘ সময়ের জন্য তৈরি করতে চেয়েছিলেন, কারণ প্রসাধনীর বাজারের কোন কিছুই তাঁর প্রয়োজনীয়তা পূরণ করতে পারছিল না।

-পণ্যটি কি সঙ্গে সঙ্গেই ভাল ফলাফল দিতে শুরু করেছিল?

-ফর্মুলাটি বেশ কয়েকবার পরীক্ষা ও সমন্বয় করা হয়েছে। তবে প্রাথমিক ফলাফলগুলি কেবল দ্বিতীয় বা তৃতীয় পরীক্ষার পরেই বেশ তাৎপর্যপূর্ণ ছিল। আমি ক্রিমটি এক মাস প্রতিদিন ব্যবহার করেছি এবং এক সকালে আয়নার দিকে তাকানোর সময় আমি লক্ষ্য করলাম যে আমার বলিরেখাগুলি চলে গেছে এবং আমার ত্বকের আভা নিখুঁত হয়েছে। তার পর থেকে, আমার ত্বক গত ১০ বছর ধরে এরকম।

ক্যাপশন মায়ার স্বামী ডাঃ মফিজ উদ্দিন চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ এবং তাঁর ২৩ বছরের অভিজ্ঞতা রয়েছে।

-ডাঃ মফিজ, আপনি কি আমাদের বলতে পারেন কেমন করে এরকম একটি ফর্মুলা উদ্ভাবন করতে পেরছেন যা আমাদের এরকম ফলাফল দেয়? এবং কেন এটি সম্পর্কে খুব কম সংখক মানুষই জানে?

-একজন বিশেষজ্ঞ হিসাবে আমার কাছে এই ফর্মুলায় জটিল কিছু নেই। প্রতিটি চিকিৎসকের জানা উচিৎ যে কিভাবে মানব শরীর তৈরি হয় এবং ত্বক কিভাবে কাজ করে। আপনার দ্বিতীয় প্রশ্নের উত্তর হিসাবে, এই মলম খুব সুপরিচিত। আমি এটি আমার রোগীদের এবং তাদের বন্ধুবান্ধব ইত্যাদির জন্য সুপারিশ করেছি। তবে আপনার অবশ্যই বুঝতে হবে যে বর্তমান আধুনিক বাজারটি প্রসাধনী পূর্ণ। বড় কম্পানিগুলো বিপনন এবং বিজ্ঞাপনে অনেক টাকা বিনিয়োগ করে থাকে, এবং তারা যে তত্যের গোলযোগ সৃষ্টি করে সেটা ভেঙ্গে ফেলা অসম্ভব।

-আপনি বলেছিলেন যে আমরা জানি মানুষের ত্বক কিভাবে কাজ করে। আপনি কি এই প্রক্রিয়াটি সহজ ভাষায় ব্যাখ্যা করবেন?

-২৫ বছর বয়স থেকে, যেকোনো ব্যক্তি প্রতি বছর ত্বকের কোলাজেনের প্রায় ১% হারাতে শুরু করে। কোলাজেন এপিডার্মিসের অন্যতম "বিল্ডিং ব্লক"। এই ক্ষতি ত্বকের গঠনে অনিয়মের কারণ হয়ে দাঁড়ায় এবং ক্রমশ ত্বকের গঠন ক্ষতিগ্রস্ত হয়। পরিশেষে, ত্বক, ত্বকের পুনর্জন্ম প্রক্রিয়া এবং পুরো জীব ধীর হয়ে যায়। এর অর্থ হলো নতুন নির্মানাধীন উপাদানগুলি কম পরিমাণে উৎপাদিত হওয়ার সময়, পুরানোটি ধ্বংস হয়ে যায় এবং আর পুনরুদ্ধার হয় না। ফলে স্থিতিস্থাপকতা হ্রাস পায় এবং ফলস্বরূপ ত্বক কুঁচকে যায়, আয়তন হ্রাস পায় এবং শেষ পর্যন্ত গভীর বলিরেখা হয়ে যায়।

-আপনার ফর্মুলাটি কিভাবে কাজ করে?

-যদি শরীর কোলাজেন উৎপাদন করতে না পারে, তবে এটিকে সাহায্য করা উচিৎ। এজন্য ফর্মুলাটি অতিরিক্ত কোলাজেন দ্বারা সমৃদ্ধ। আপনি যেমন জানেন যে অতিরিক্ত কোলাজেন কেবল সমস্যার পরিণতিগুলিকেই প্রভাবিত করে, যে কারণে আমাদের নতুন কোলাজেন সংশ্লেষণ এবং কোলাজেন ফাইবারের সংশ্লেষণের মাধ্যমে এর কারণটির মোকাবেলা করতে হবে।

আমরা কিছু সময়ের জন্য সেরা সমাধানটির সন্ধান করেছি এবং আমাদের ফর্মুলার প্রথম সংস্করণে রেটিনল ব্যবহার করেছি। তবে পরীক্ষার ফলাফলগুলিতে দেখা যায় যে রেটিনলের অনেকগুলি পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া রয়েছে যেমন ত্বকের স্কেলিং, চুলকানি, অ্যালার্জির প্রতিক্রিয়া ইত্যাদি। তারপরে আমরা আরও একটি সূক্ষ্ম উপাদান গোজি বেরি নির্জাস দিয়ে রেটিনল প্রতিস্থাপন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি, যার কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া বা কন্ট্রেইন্ডিকেশন নেই।

অন্যান্য পরীক্ষায় দেখা গেছে যে গোজি বেরি নির্জাস কেবল কোলাজেন নিঃসরণকে উদ্দীপিত, ত্বকের স্থিতিস্থাপকতা পুনরুদ্ধার ও বলিরেখাকে মসৃণ করে না, এটি মেলানিনের মুক্তিও দমন করে, যা রঙ্গক দাগ গঠনের জন্য দায়ী। এন্টিসেপটিক বৈশিষ্ট্যগুলির জন্য ধন্যবাদ জানাই, কেননা কিছু কিছু ক্ষেত্রে, এটি ত্বকের অসম্পূর্ণতা ও ব্রণগুলি দূর করে। সুতরাং আমরা অনুধাবন করতে পারি যে আমাদের যা প্রয়োজন ছিল তা আমরা পেয়েছি।

-আপনার স্ত্রী ব্যতীত অন্য কোনও কি উদাহরণ রয়েছে যা ফর্মুলাটির কার্যকারিতা প্রমাণ করতে পারে?

-অবশ্যই। মায়াই প্রথম ছিল, তবে সমস্ত ল্যাবরেটরি পরীক্ষা সম্পন্ন করার পরে আমরা মলমটির উৎপাদন শুরু করি এবং এটি আমার রোগীদের কাছে সুপারিশ করতে শুরু করি। তারাও এটি তাদের আত্মীয়স্বজন এবং বন্ধুদের কাছে সুপারিশ করে। পরীক্ষা নিরীক্ষায় দেখা গেছে যে ৬৫ বছরের বেশি বয়সের মহিলাদের মুখের বলিরেখার হাত থেকে মুক্তি দেবার পাশাপাশি ত্বকের সমস্যা যেমন ত্বকের শুষ্কতা এবং চামড়া ঝুলে পড়ার সমস্যার সমাধান করতে পারে।

ক্যাপশন ডাঃমফিজ উদ্দিনের রোগী Goji Cream ব্যবহার করার আগে এবং পরে

-আপনি বলেছেন যে শক্তিশালী প্রসাধনী জায়ান্টরা বাজারে প্রবেশ করা কঠিন করে তুলছে। আপনি তাহলে আপনার মলম বাজারজাত করবেন কিভাবে? এটি কোথায় কেনা যাবে?

-আপাতত, এটা শুধুমাত্র আমাদের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। আমরা আমাদের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি, আশা করি আমাদের পণ্যটি ভবিষ্যতে ফার্মেসি ও দোকানেও পাওয়া যাবে। তবে, পণ্যটি অনলাইনে কেনাই আমাদের ক্রেতাদের জন্য বেশি সুবিধাজনক। যেহেতু পণ্যটি আমাদের দেশে প্রচার করা হয়না এবং বিজ্ঞাপন দিতে আমাদের বাজেটও ঠিক করা নেই তাই বিপননের লক্ষ্যে, আমরা সাধারণত সীমিত ক্যাম্পেনের মাধ্যমে প্রচারনামূলক মূল্যছাড় দিচ্ছি।

এ পর্যন্ত যে পরিমান পণ্য করেছেঃ

23 সংখ্যা
সাবধানঃ

আমাদের ওয়েবসাইটের দর্শনার্থীরা Goji Cream! অর্ডার করার সুযোগ পাচ্ছেন, এজন্য অবশ্যই "স্পিন" বাটনে ক্লিক করে চাকা ঘুরাতে হবে এবং সম্পুর্ণ থামা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। কে জানে, আপনিও হয়তো আজ গ্র্যান্ড প্রাইজ বিজয়ী সৌভাগ্যবান হয়ে যেতে পারেন। শুভ কামনা রইলো!

ঘুরান
দামাদামি করুন!
4598 BDT
2299 BDT

দাপ্তরিক অর্ডার ফর্ম

এখন পর্যন্ত ৩০,০০০টির মধ্যে ২৯,৯৮২ টি বিক্রি হয়ে গেছে Goji Cream হ্রাসকৃত মূল্যে কিনতে চাইলে 2299 BDT
Goji Cream কিনতে, নিচের ঘরে আপনার নাম ও ফোন নম্বার দিন এবং অর্ডার বাটনে ক্লিক করুন।
* আপনার তথ্য সরাসরি প্রস্তুতকারকের কাছে পাঠানো হয়েছে। অন্য কেউ দেখতে পাবে না।

মন্তব্যঃ

ইভানা আমিন

লোকজন মনেহয় বুঝতো না যে ও তার গার্লফ্রেন্ড যদিনা ছবিতে ও এভাবে পোজ না দিত?

দেলোয়ারা জাহান

ইভানা, আমি তোমারর সাথে একমত, ওকে খুবই আজব দেখাচ্ছে।

সুফিয়া করিম

তাহলে অন্য চর্মোরোগবিশেষজ্ঞরা এরকম জাদুকরি ক্রিম এখনও কেন বানালো না? সমস্যা কোথায়? তারা তো এক্সপার্ট, তাইনা?

মনোয়ারা আজিম

সেজুতি, কারন সবাই এটা চায়না বা কেনার সামর্থ নেই বা আসল লোক চিনে না।

মৌমিতা চাকি

এই ক্রিমটা আসলেই কাজ করে! বলে রাখা ভাল, এইটা আমি চর্মরোগবিশেষজ্ঞ বা তার রোগীদের কাছ থেকে জানি নাই, জেনেছি ফেসবুকের কমেন্ট থেকে।

তাসনিম ইমা

আর্টিকেলের মহিলাটাকে আমার ভাল লাগেনি। খুব নিজের গুন গায়...

মমতাজ বেগম

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে এই ক্রিম যে পরিবর্তনটা আনে। প্রথমে, আপনার চেহারা তরুণ হয়ে উঠবে, এরপরে সবরকম আবেগ ও কর্মচাঞ্চল্যে আপনার জীবন ভরে উঠবে, আর এটা ভাষায় প্রকাশ করা সম্ভব না!

অনামিকা জেনি

এর সাথে আমি সম্পূর্ণ একমত! এই ক্রিমটা ব্যবহারের পরে আমার স্বামী আবারও আমার দিকে মনযোগ দেয়া শুরু করেছেন, যেন আমরা তরুন-তরুণী। এখন আমরা ২০ বছর আগের চেয়েও বেশি সেক্স করি।

সুমাইয়া তাবাসসুম

আমি ক্রিমটা আমি আমার আম্মার জন্য অর্ডার করেছিলাম। প্রোডাক্টটা অবশ্য দেখতে বিখ্যাত ব্র্যান্ডের ক্রিমগুলোর মত সুন্দর না। তাতে সমস্যা তো নাই কারন এতে বোঝা যায় যে এটা একক কোন প্রস্তুতকারকের বানানো। আমার মা খুশি, উনি ২ মাস ধরে এটা ব্যবহার করতেছেন।

শাকিলা পারভিন

আমি মাত্রই ৫০% ছাড় পেলাম! আর কেউ জিতেছেন?

আনিকা তাসনিম

আমি ৩০% ছাড় পেয়েছি, পেজ অনেকবার রিফ্রেশ করলাম, রিলোড করলাম, কয়েকবার চেষ্টা করলাম কিন্তু ৩০% আমিও অর্ডার করেছি।

সুফিয়া খাতুন

এইটা আসলেই কাজ করে!!! আমি ৩ মাস আগে অর্ডার করেছিলাম, এরপর থেকে প্রতিদিন ব্যবহার করছি, আশা করি উনারা এটা বানানো বন্ধ করে দিবেন না।

মৌসুমি মিত্র

এই ক্যাম্পেন কতদিন চলবে?

শারমিন জামান

মানুষ এখন বলে আমাকে ৩০ এর কম দেখায়, দারুন! আগে আমি আমার নিজেকে নিয়ে লজ্জিত ছিলাম, এখন বরং এটা বলতে লজ্জা লাগে যে সত্যই আমি ৪৩ :)